প্রকল্প সমূহ

অনলাইন পদ্ধতির মাধ্যমে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা পদ্ধতি সহজীকরণ
কমপক্ষে ৭০০২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২ লাখ শিক্ষার্থীর পরীক্ষার ব্যবস্থা বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডকে করতে হয়। কিন্তু সেটা করতে গিয়ে অনেক সময় ও শ্রম ব্যয় হয়। এই প্রকল্পে কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষার মূল্যায়ন পদ্ধতিতে অটোমেশনের মাধ্যমে সেটা থেকে পরিত্রাণ দেওয়া হবে।
স্বল্পমূল্যের স্বয়ংক্রিয় ডিজিটাল সিএনসি লেদ
লেদ শ্রমিকরা যে সকল যন্ত্রপাতি প্রতিনিয়ত ব্যবহার করে আসছেন সেই যন্ত্রপাতিগুলো যুগ-উপযোগী নয়। সে আমাদের এই উদ্যোগ ‘স্বল্পমূল্যের ডিজিটাল সিএনসি লেদ’ মেশিন তৈরি করে উল্লেখিত সমস্যাগুলোর সমাধান করা হবে। যেটি হবে সাধারণের জন্যে সহজলভ্য এবং স্বল্পমূল্যের।
ফ্লিপিং সায়েন্স ক্লাসরুম
বাংলাদেশের অধিকাংশ স্কুলের পাঠদান প্রক্রিয়া আমূল বদলে ফেলতে এই প্রকল্প। যাতে কারিকুলামের উপর ভিত্তি করে তৈরি শিক্ষা উপকরণ শিক্ষার্থীদের কাছে ক্লাসের আগেই সরবরাহ করা হবে এবং প্রস্তুতি নিয়ে ক্লাসে আসবে তারা। যা পড়ে আসল সেটার অনুসন্ধিৎসু ও সৃজনশীল চিন্তার উপর ভিত্তি করে একটি উদ্দীপনামূলক মূল্যায়নের পর ক্লাসের অন্য কার্যক্রম শুরু হবে।
সমবায় অধিদপ্তরকে দিয়ে সমবায়ীদের পণ্য বাজারজাতকরণ
বাংলাদেশের কমপক্ষে ৩০ হাজার সমবায়ী বিভিন্ন ধরনের কৃষি ও অকৃষি জাত পণ্য উৎপাদন কার্যক্রমে সম্পৃক্ত। একটি প্রযুক্তি নির্ভর প্রাতিষ্ঠানিক বাজার কাঠামো না থাকায় কারণে তাদেরকে স্থানীয় বাজার চাহিদার উপর নির্ভরশীল থাকতে হয়। স্থানীয় বাজারে নানাধরনের সিন্ডিকেটের উপস্থিতি থাকায় উৎপাদনকারীগণ ম্যানুপুলেশনের শিকার হন। পণ্যের প্রকৃত মূল্য থেকে সমবায়ীদের বঞ্চিত হওয়ার প্রেক্ষাপটে একটি বিশেষ অনলাইন নেটওয়ার্ক গড়ে তোলা হবে এই প্রকল্পে।
কানেকটিং বাংলাদেশ
টেলিভিশন স্টেশন এটিএন নিউজে ‘কানেকটিং বাংলাদেশ’ অনুষ্ঠানের আরো সাধারণ গ্রামীন নারী ও কৃষককে সংযুক্ত করার জন্য নতুন এই প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। আগে কানেকটিং বাংলাদেশ অনুষ্ঠানের স্টুডিও থেকে অনলাইনে সরাসরি যোগাযোগের মাধ্যমে গ্রামীন নারী ও কৃষকদের বিশেষজ্ঞ পরামর্শ দেওয়া হতো। এবার সেসঙ্গে নতুন আইডিয়া যুক্ত করে ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্যোক্তাদের এতে সম্পৃক্ত করা হয়েছে। যাতে সাংবাদিকতার ন্যূনতম প্রশিক্ষণ নেওয়ার পর তারা সংবাদ বা সাক্ষাতকার পাঠাবেন। তাদের বাছাই করা সংবাদ বা সাক্ষাতকার থেকে কানেকটিং বাংলাদেশ অনুষ্ঠানে উপস্থাপিকার মুখ ঘুরে যাওয়া গ্রামীন মানুষের সমস্যার পথনির্দেশ করবেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক বা কৃষিবিদ।
মোবাইল এপ্স এর মাধ্যমে মৎস্য সংক্রান্ত পরামর্শ সেবা মৎস্য চাষীর দোড়গোড়ায় পৌঁছানো কার্যক্রম প্রমিতকরণ ।
রেডিও গাইডেড সার্জিক্যাল গামাপ্রোবের মাধ্যমে অপারেশনের সময় রিয়েল টাইমে লিম্প নোড ম্যাপিং
স্মার্ট হোল্ডিং অ্যাসেসমেন্ট ও ট্যাক্স ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম
ফসলের মাঠ ও ফসলের হাট
কৃষকের শ্রমে-ঘামে অর্থনীতির চাকা সচল থাকলেও তারা নানাভাবে ক্ষতির সম্মুখীন কিংবা বঞ্চনার শিকার হন। অজ্ঞতার কারণে আধুনিক এই যুগেও তাদের ফসলের পরিমাণ অনেক কম, আধুনিক চাষাবাদ প্রণালী নিয়ে জ্ঞান সীমিত, নির্ধারিত ফসলের মৌসুমী ক্ষতির পরিমাণ অনেক বেশি এবং বাজারজাতকরণে সীমাবদ্ধতা। এর কারণে কৃষি পণ্যে দামের উঠানামা হয় অনেক, ক্ষতির মুখে পড়েন কৃষক ও সাধারণ ক্রেতা এবং বাধাগ্রস্থ হয় জাতীয় অর্থনীতি। কৃষককে ফসল ফলানোর তথ্য দিয়ে সহায়তা এবং অনলাইনের মাধ্যমে ফসল বিক্রি করার প্রকল্প ‘ফসলের মাঠ ও ফসলের হাট’।
নিরাপদ নৌযাত্রা
গত ২১ বছরে ৭০০০ লোক নৌ দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন এবং চালকদের অদক্ষতা ও অবহেলার কারণে দুর্ঘটনা বেশি হয়। নৌযানে ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন বন্ধে স্বয়ংক্রিয় ডিভাইস তৈরির কাজ করবে ‘নিরাপদ নৌযাত্রা’ প্রকল্প।
স্পিক আপঃ বাক প্রতিবন্ধীদের সহায়ক ডিভাইজ
বাক প্রতিবন্ধীরা ইশারা ভাষায় কী বলছেন সেটা বুঝার জন্য নতুন ডিভাইস ‘স্পিক আপ’। হাত মোজার মতো আকৃতির এই ডিভাইস থেকে নির্দিষ্ট প্রক্রিয়ায় বাক প্রতিবন্ধীদের কথা অডিও আকারে শুনতে পারবেন অন্যরা, যেটা সংরক্ষিত থাকবে ডিভাইসের এস ডি মেমোরি কার্ডে।
মোবাইল ফোন নিয়ন্ত্রিত হুইল চেয়ার
দেশের ৫০ লাখ শারীরিক প্রতিবন্ধী ও পক্ষাঘাতগ্রস্ত মানুষের যারা হুইল চেয়ার ব্যবহার করে তাদের জন্য সমসংখ্যক সাহায্যকারীর প্রয়োজন পড়ে। এই নির্ভরশীলতা থেকে বেরিয়ে আসার উদ্যোগ স্মার্ট হুইল চেয়ার। যেটা অ্যান্ডয়েড মোবাইল ফোন দিয়ে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব।