logo

চ্যালেঞ্জ ফান্ড কি?


চ্যালেঞ্জ ফান্ড এ আবেদন সংক্রান্ত নির্দেশনা:





logo

সমস্যার ক্ষেত্র চিহ্নিতকরণ আলোচনা

আবেদন জমা দানের শেষ তারিখ
৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭।


logo

প্রক্রিয়া

উদ্ভাবনী সমাধান চূড়ান্তভাবে নির্বাচনে যে সকল ধাপ অনুসরণ করা হবে
অনলাইনে
আবেদন গ্রহণ
প্রাথমিক
বাছাই
কারিগরী বিশেষজ্ঞ প্যানেলের জন্য উপস্থাপনা তৈরি শীর্ষক কর্মশালা
কারিগরী বিশেষজ্ঞ
প্যানেলের মূল্যায়ন
নির্বাচিত প্রকল্প নিয়ে বাজেট চূড়ান্তকরণ কর্মশালা
চূড়ান্ত অনুমোদন


সচরাচর জিজ্ঞাসা


কারা আবেদন করতে পারবে?

যে কোনো কনসোর্টিয়াম বা প্রতিষ্ঠান আবেদন করতে পারবে।

কি ধরনের সমাধান দেয়া যাবে?

প্রযুক্তিভিত্তিক এবং বাস্তবায়নযোগ্য যে কোনো উদ্ভাবনী সমাধান দাখিল করা যাবে।

ব্যক্তিগত হিসেবে আবেদন করা যাবে কি?

না, যে কোনো কনসোর্টিয়াম করে বা প্রতিষ্ঠানের সাথে সম্পৃক্ত হয়ে আবেদন করতে হবে।

বাছাই প্রক্রিয়ায় কতগুলো ধাপ রয়েছে?

তিনটি ধাপ রয়েছে। প্রাথমিক যাচাই, কারিগরি বিশেষজ্ঞ প্যানেলের মূল্যায়ন ও চূড়ান্তভাবে নির্বাচন।

বিজয়ীদের জন্য পুরষ্কারের ব্যবস্থা আছে কি?

একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হবে এবং উদ্ভাবনী সমাধানের পাইলটিং এর জন্য সর্বোচ্চ ২৫ লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে।

কবে ফলাফল প্রকাশ করা হবে?

অনলাইনে আবেদন দাখিলের সময়সীমা শেষ হওয়ার ২ মাসের মধ্যে চূড়ান্তভাবে নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করা হবে এবং ১ম কিস্তির টাকা প্রদান করা হবে।

এটুআই থেকে কোন নিশ্চিতকরণ ই-মেইল না পেলে বা যোগাযোগ না করলে কী করণীয়?

সাধারণত বিভিন্ন ধাপে নির্বাচিতদের নিশ্চিতকরণ ই-মেইল প্রদান করা হয়, কোনোরূপ ই-মেইল না পাওয়া গেলে বা যোগাযোগ না করা হলে ধরে নিতে হবে প্রকল্পটি পরবর্তী ধাপের জন্য নির্বাচিত হয়নি।

কোন প্রকার কারিগরী সমস্যার ক্ষেত্রে কোথায় যোগাযোগ করবো?

কারিগরী সমস্যার ক্ষেত্রে ই-মেইলে (innovation@a2i.pmo.gov.bd) যোগাযোগ করা যাবে।

আবেদন জমা দানের শেষ তারিখ
৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৭।